নতুন উদ্যমে ফিরছেন সারিকা

দীঘর্ সময় ধরে অভিনয়ে অনিয়মিত সারিকা। বিয়ের পর সন্তান ও পরিবার নিয়েই ব্যস্ত সময় কাটে তার। এরপর যখন অভিনয়ে ফিরতে চান তখন নিজের দোষে সমস্যায় পড়েন। অশিল্পীসুলভ আচরণের অভিযোগে ছয় মাসের নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়তে হয় এই মডেল ও অভিনেত্রীকে। ১ আগস্ট থেকে তাকে ছয় মাসের জন্য নিষিদ্ধ করে টেলিভিশন প্রোগ্রাম প্রডিউসার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ। কিন্তু অতদূর তাকে যেতে হলো না। তিন মাস যেতে না যেতেই ফিরেন অভিনয়ে। নিজের ভুল স্বীকার করে আবেদন করলে নিষেধাজ্ঞা শিথিল করে সংগঠনটি। সারিকা বলেন, ‘আমার কিছু ভুলত্রæটি ছিল, এ জন্যই ক্ষমা চেয়েছি। সংগঠন বরাবর চিঠি দিয়েছি, প্রকাশ্যে ফেসবুকেও ক্ষমা চেয়েছি। সবসময়ই চেষ্টা করেছি সহকমীের্দর মন জুগিয়ে কাজ করতে। তবু কিছু ভুল তো হয়েই যায়।’ এরপর ভুল শুধরিয়ে নতুন উদ্যমে অভিনয়ে ফিরেন সারিকা।

গত ৩ নভেম্বর আবার ক্যামেরার সামনে দঁাড়ান এ অভিনেত্রী। সকাল আহমেদের নাটক ‘ব্রেকিং নিউজ’-এ অভিনয় করেন। ভালোবাসা দিবসে প্রচারিত হবে এটি। নাটকে সারিকার সহশিল্পী সজল। এরপর ৮ নভেম্বর থেকে টানা তিন দিন শুটিং করেন ‘শূন্যস্থান পূরণ’ নাটকে। ১৩ নভেম্বর শুটিং করেন অন্য আরেকটি নাটকে। সম্প্রতি ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে ‘ঘাস ফড়িংয়ের প্রেম’ নামের একটি নাটকে অভিনয় করেছেন সারিকা। এটি নিমার্ণ করেছেন এস এম তারেক। নাটকটিতে চিত্রনায়ক ইমন ও সারিকা ছাড়াও অভিনয় করেছেন মারজুক রাসেল ও মুনিরা মিঠু। এদিকে ভিন্ন এক চরিত্রে অভিনয় করলেন সারিকা। মাবরুর রশীদ বান্নাহ’র পরিচালনায় ‘সেলাই দিদিমনি’ টেলিছবিতে গামের্ন্টসকমীর্ চরিত্রে দেখা যাবে তাকে। এতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন ইরফান সাজ্জাদ। এবারই প্রথম একসঙ্গে কাজ করলেন তারা। আগামী ১৬ ডিসেম্বর ‘সেলাই দিদিমনি’ টেলিছবিটি ক্লাব ১১ এন্টারটেইনমেন্টের অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে প্রচার হবে।

শুধু নাটকেই নন, বিজ্ঞাপনও করতে যাচ্ছেন সারিকা। এ নিয়ে তিনি বলেন, ‘বড় ব্র্যান্ডের বেশ কিছু বিজ্ঞাপনেও কাজ করার কথা হয়েছে। চ‚ড়ান্ত হলেই জানাতে চাচ্ছি। নতুন করে শুরুর এই সময়ে ভালোই ব্যস্ত হয়ে গেলাম। এখন থেকে এমন ব্যস্ততার মধ্য দিয়েই কাজ করব’। মডেলিং-অভিনয়ে ১০ বছরের ক্যারিয়ার তার। বরাবরই সারিকার বিরুদ্ধে নিমার্তাদের অভিযোগ, তিনি প্রায়ই শিডিউল ফঁাসান। খুব কমই এসব ঘটনা প্রকাশ্যে আসে।

এ নিয়ে সারিকা বলেন, ‘এসব শুনলে সত্যিই কষ্ট পাই। এই ১০ বছরে তিন শর বেশি কাজ করেছি। এর মধ্যে হয়তো একটা-দুইটা কাজ অ্যাকসিডেন্টলি ঠিকভাবে করতে পারিনি। সেই দু-একটা ঘটনা দিয়ে মানুষ পুরো ক্যারিয়ারটা বিচার করে। বাকি ২৯৮টি কাজ যে ভালোবাসা দিয়ে করলাম, তার কি কোনো মূল্য থাকবে না? সেই দু-একটা কাজের জন্য নিজেকেও কিন্তু কাঠগড়ায় তুলি।’

নতুন করে শুরু করেছেন। ভবিষ্যৎ ভাবনা কী? জানতে চাইলে সারিকা বলেন, ‘যতটা পেয়েছি তাতেই খুশি। তবে ভেতরে একটা হতাশা থাকেই, হয়তো আরও ভালো কিছু করতে পারতাম। প্রফেশনাল ও পাসোর্নাল লাইফ ব্যালান্স করতে গিয়ে নিজেকে বঞ্চিত করেছি হয়তো। এখন সব কাটিয়ে উঠেছি। এবার নতুন উদ্যমে কাজ করব। নিশ্চয়ই তার ফল পাব।’

Facebook Comments